Saturday, May 29, 2021

Malthus theory


 •মালথুসিয়ানিজম ধারণাটি যে জনসংখ্যা বৃদ্ধি সম্ভাবনামূলকভাবে তাত্পর্যপূর্ণ হয় যখন খাদ্য সরবরাহ বা অন্যান্য সংস্থার বৃদ্ধি লিনিয়ার হয়, যা অবশেষে জীবনযাত্রাকে হ্রাস করে একটি জনসংখ্যার প্রবণতা সঞ্চারিত করার পর্যায়ে। এই ইভেন্টটিকে ম্যালথুশিয়ান বিপর্যয় (ম্যালথুসিয়ান জাল, জনসংখ্যা ফাঁদ, ম্যালথুসিয়ান চেক, মালথুসিয়ান সংকট, ম্যালথুসিয়ান স্পেক্টর বা ম্যালথুসিয়ান ক্রাচ হিসাবেও পরিচিত) বলা হয়, যখন জনসংখ্যা বৃদ্ধি কৃষিক্ষেত্রের বাইরে চলে যায়, দুর্ভিক্ষ বা যুদ্ধের কারণ হয়, যার ফলে দারিদ্র্য ও জনগোষ্ঠী হয়। এই ধরনের বিপর্যয় অনিবার্যভাবে জনগণকে বাধ্য করার প্রভাব ফেলেছে (বেশ দ্রুত, জড়িত প্রশমনজনিত কারণগুলির সম্ভাব্য তীব্রতা এবং অনাকাঙ্ক্ষিত ফলাফলের কারণে, তুলনামূলকভাবে ধীর সময় স্কেল এবং ভালভাবে বোঝার প্রক্রিয়াগুলির তুলনায় তুলনামূলকভাবে ধীরে ধীরে বৃদ্ধি বা প্রতিরোধক দ্বারা প্রভাবিত বৃদ্ধিকে নিয়ন্ত্রণ করে) নীচে, আরও সহজে টেকসই স্তরে ফিরে "সংশোধন" করতে পরীক্ষা করে দেখা যায় ৷ মালথুসিয়ানিজম বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং সামাজিক আন্দোলনের সাথে যুক্ত হয়েছে তবে প্রায় সবসময় জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের সমর্থকদের বোঝায় ৷

 

•এই ধারণাগুলি রেভারেন্ড থমাস রবার্ট ম্যালথাসের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক চিন্তাধারার থেকে উদ্ভূত, যেমনটি তাঁর 1798-র লেখাগুলিতে লিখেছেন, জনসংখ্যার মূল বিষয় একটি প্রবন্ধ। মালথাস পরামর্শ দিয়েছিলেন যে প্রযুক্তিগত অগ্রগতি যখন সমাজের খাদ্য সরবরাহের মতো সংস্থার সরবরাহ বৃদ্ধি করতে পারে এবং এর ফলে জীবনযাত্রার মান উন্নত হতে পারে তবে সম্পদের প্রাচুর্য জনসংখ্যা বৃদ্ধি করতে সক্ষম করবে, যা শেষ পর্যন্ত সংস্থানগুলির মাথাপিছু সরবরাহকে তার মূল স্তরে ফিরিয়ে আনবে। কিছু অর্থনীতিবিদ দাবি করেছেন যে শিল্প বিপ্লব হওয়ার পর থেকে মানবজাতির জাল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। আবার কেউ কেউ যুক্তি দেখিয়েছেন যে চরম দারিদ্র্যের ধারাবাহিকতা ইঙ্গিত দেয় যে মালথুসিয়ান ফাঁদ কাজ করে চলেছে। অন্যরা আরও যুক্তি দেখিয়েছেন যে অতিরিক্ত দূষণের সাথে সাথে খাদ্য প্রাপ্যতার অভাবে, উন্নয়নশীল দেশগুলি এই ফাঁদটির আরও প্রমাণ দেখায় একটি অনুরূপ, আরও আধুনিক ধারণা হ'ল মানুষের অতিরিক্ত জনসংখ্যা।


•1798 সালে, টমাস ম্যালথাস জনসংখ্যার মূলনীতি সম্পর্কিত একটি প্রবন্ধে তাঁর তত্ত্বের প্রস্তাব করেছিলেন।


তিনি যুক্তি দিয়েছিলেন যে সমাজের জনসংখ্যা বৃদ্ধি করার একটি প্রাকৃতিক প্রবণতা রয়েছে, এমন একটি প্রবণতা যা জনগণের বৃদ্ধির জন্য মানুষের সুখের সর্বোত্তম মাপকাঠি হতে পারে: "একটি দেশের সুখ একেবারে দারিদ্র্য বা তার ধনীতার উপর নির্ভর করে না  , তার যৌবন বা তার বয়স সম্পর্কে, তার পাতলা, বা পুরোপুরি বসবাসের পরে, তবে এটি যে গতিবেগের সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে, সেই ডিগ্রি অনুসারে, যেখানে বার্ষিক খাবারের বাড়ে বাধা বাধিত না হওয়াতে বার্ষিক বৃদ্ধি প্রতিবন্ধকতার জন্য বৃদ্ধি পায় ৷

Caste defination - characteristic


 



১২.৯ জাতির সংজ্ঞা ও বৈশিষ্ট্য (Definition and Characteristic of Caste System)—জাতি ও বর্ণ (Caste & Varna)


শ্ৰেণীব্যবস্থা ছাড়া জাতিব্যবস্থা হল ভারতীয় সমাজের একটি সুপ্রাচীন বৈশিষ্ট্য। ইরেজি Caste শব্দটির অর্থ হল জন্ম বা বংশানুক্রমিক অর্থাৎ জাতি জন্মভিত্তিক। অধ্যাপক মজুমদার ও মদনের মতে, জাতি বলতে এক বদ্ধ গােষ্ঠীকে বােঝায়। বস্তুতপক্ষে জাতি হল এক আন্তঃবৈবাহিক গােষ্ঠী। এই গােষ্ঠীর সদস্যদের সামাজিক ক্ষেত্রে কতকগুলি বিধিনিষেধ বা আচার-আচরণ মেনে চলতে হয়। এরা চিরাচরিত ও অভিন্ন বৃত্তি অনুযায়ী এবং উৎপত্তিসূত্রে এক ও সমজাতীয় স্বরূপ। সমাজতাত্ত্বিক কুলির মতে,একটি জনগােষ্ঠী জন্মের ভিত্তিতে কিছু ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি এবং চিরাচরিত বৃত্তি অনুসরণ করলে, তাকে জাতি বলে।  এক বংশানুক্রমিক গােষ্ঠী যার একটি চিরাচরিত পেশা রয়েছে এবং সদস্যদের নিয়ন্ত্রণের জন্য নির্দিষ্ট আচরণ ও বিধিনিষেধ রয়েছে। জাতি ব্যবস্থার বৃত্তি অনুযায়ী ভারতীয় সমাজের জনগােষ্ঠীকে প্রধান চারভাগে বিভক্ত করা হয়—ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয়, বৈশ্য ও শূদ্র। জাত ছাড়া রাম আহুজা, ঘুরে, ম্যাক্স ওয়েবার প্রমুখ সহজাতের (sub-caste) ধারণা দান করেন। প্রকৃতপক্ষে জাতের উপবিভাজন হল সহজাত। উদাহরণ স্বরূপ ব্রাহ্মণ হল জাত। অন্যদিকে ব্রাহ্মণ সম্প্রদায়ভুক্ত বিভিন্ন গােষ্ঠীকে সহজাত বলা যায়।


সমাজতাত্ত্বিক ঘুরে মন্তব্য করেন আর্যদের আগমনের পর উপজাতিদের সঙ্গে পার্থক্য রক্ষার জন্য জাতির উদ্ভব হয়। এক শ্রেণীর সমাজবিজ্ঞানী জাতি ও বর্ণ মনে করেন যে, শ্রেণী যখন পেশা বা বৃত্তিকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠে এবং বংশধারার মধ্যে সীমাবদ্ধ হয়, তখন জাতির উদ্ভব হয়। লেসফিল্ডের মতে আর্যরা আসার পূর্বে ভারতে প্রাক-দ্রাবিড়ীয় অধিবাসীদের মধ্যে জনগােষ্ঠীগুলি নির্দিষ্ট পেশার ভিত্তিতে বিভক্ত ছিল। পরবর্তীকালে আর্য আগমন ও হিন্দু শাস্ত্রের চার বর্ণের (ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয়, বৈশ্য ও শূদ্র) ভিত্তিতে সৃষ্ট বর্ণাশ্রম ব্যবস্থা শ্রেষ্ঠত্ব রক্ষার জন্য জন্ম-ভিত্তিক হওয়ার ফলে জাতিব্যবস্থার উদ্ভব হয়। যাইহােক, প্রাচীন ভারতে বর্ণাশ্রম ব্যবস্থায় উচ্চবর্ণ ও ব্রাহ্মণ্য ধর্মের প্রাধান্য রক্ষার জন্য উচ্চবর্ণের অধিকার সুপ্রতিষ্ঠিত ছিল। সামাজিক দায়-দায়িত্ব ও সেবা শূদ্রদের। জন্য নির্দিষ্ট ছিল। চতুর্বর্ণের উৎপত্তি সম্পকে ঋগবেদে বলা হয়েছে যে, ব্রহ্মার মুখ । থেকে ব্রাহ্মণের আবির্ভাব হয়েছে। উনি অর্জন হল ব্রাহ্মণের প্রধান কাজ। ক্ষত্রিয় বাহু। থেকে নির্গত হয়েছে, যুদ্ধ ও শাসন হল ক্ষত্রিয়ের প্রধান দায়িত্ব। ব্রহ্মার উরু থেকে আবির্ভাব বৈশ্যের প্রধান পেশা হল বাণিজ্য। ব্রলার পদযুগল হতে সৃষ্ট শূদ্রের প্রধান কর্তব্য হল উপরােক্ত তিন বর্ণের সেবা করা।


সমাজ বিভাজনের ক্ষেত্রে শ্রেণী হল মুক্ত ব্যবস্থা (open system) এবং জাতি হল বদ্ধ ব্যবস্থা (closed system)। এই দুটি ব্যবস্থার মধ্যে বিভিন্ন ধরনের সামঞ্জস্য ও অসামঞ্জস্য লক্ষ করা যায়। সামাজিক স্তরবিন্যাসের ক্ষেত্রে শ্রেণী ও জাতির মধ্যে নিম্নলিখিত কয়েকটি পার্থক্য লক্ষণীয়।


প্রথমত, জন্মসূত্র অথবা কুলগত বিচার হল জাতিভেদ প্রথার ভিত্তি। তাই জাতিভেদ প্রথা বংশানুক্রমিক (Hcreditary) এবং জাতি হল একটি বদ্ধ গােষ্ঠী। একটি জাতির মধ্যে অন্য জাতির মানুষের প্রবেশ বা অন্তর্ভুক্তি অসম্ভব। অন্যদিকে শ্রেণীভেদ হল সামাজিক স্তরবিন্যাসের আধুনিক রূপ। জীবনের সুযােগসুবিধা, নতুন নতুন সম্ভাবনার তারতম্য বা সামাজিক প্রতিষ্ঠার বৈষম্য হল শ্রেণীভেদের ভিত্তি। সামাজিক বৈশিষ্ট্যের পরিপ্রেক্ষিতে জাতিভেদ সুচিত, কিন্তু অর্থনৈতিক বৈশিষ্ট্যের পরিপ্রেক্ষিতে শ্রেণীভেদ সূচিত হয়।


দ্বিতীয়ত, সামাজিক সচলতা শ্রেণীবিন্যাসের একটি গুরত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য। জাতিবিন্যাসের ক্ষেত্রে এই বৈশিষ্ট্য অনুপস্থিত। সামাজিক শ্রেণীর ক্ষেত্রে আরােহণ অবরােহণের সুযােগ আছে। জাতিভেদ প্রথায় এই সুযোগ নেই। তাই আধুনিক সমাজের শ্রেণীবিন্যাস হল মুক্ত সমাজের গুতীক।


তৃতীয়ত, শ্রেণীবিন্যাসের ক্ষেত্রে পদমর্যাদার প্রশ্নটি পূর্বনির্মানিত বা পরিবর্তনীয় নয় পরিবর্তনযােগ্য। কিন্তু জাতিবিন্যাসের ক্ষেত্রে পদার্যাদা জমিত্রে নির্দিষ্ট এক পরিবর্তন ঘটে না। অর্থাৎ সামাজিক শ্রেণীর মর্যাদা অজিত (Acquired status) এবং জাতির মর্যাদা আরােপিত (Ascribed stitus)।

Sociology definition - subject matter - scope

 



Sociology :

১.৩ সমাজতত্ত্বের সংজ্ঞা, পরিধি ও বিষয়বস্তু (Definition of Sociology,


Boundary and Subject matter; its scope)


উনবিংশ শতাব্দীতে ফরাসি দার্শনিক অগাস্ট কেঁাত Sociology বা সমাজতত্ত্ব নামক শাস্ত্রের সূচনা করেন। শব্দগত অর্থে সমাজতত্ত্ব হল সমাজ সম্পর্কিত জ্ঞান। ম্যাকাইভার ও পেজের মতে মানব সমাজ এবং সামাজিক সম্পর্কের সামগ্রিক বিশ্লেষণকে সমাজতত্ত্ব বলা হয়। মানুষের মানবিক সম্পর্ক, পারস্পরিক ক্রিয়া প্রতিক্রিয়া ও সামাজিক ঘটনাবলির বৈজ্ঞানিক জ্ঞানকে সমাজতত্ত্ব বলে।


পরিধি ও বিষয়বস্তু ও মানবসমাজকে কেন্দ্র করে সমাজতত্ত্বের আলােচ্য বিষয় গড়ে উঠেছে। সমাজতত্ত্বের আলােচ্য বিষয় হল মানব সমাজ ও সমাজস্থ মানুষের বহুবিধ সামাজিক সম্পর্ক। সামাজিক ঘটনার বিশ্লেষণ হল সমাজতত্ত্বের প্রধান লক্ষ্য। একাধিক মানুষের সম্পর্কের ফলে সামাজিক ঘটনার সৃষ্টি হয়। মানবিক সম্পর্ক ও সামাজিক ঘটনাকে ব্যাখ্যা করার জন্যই সমাজতত্ত্বের সৃষ্টি। সমাজতত্ত্বের বিষয়বস্তু ও পরিধি প্রসঙ্গে দুটি ধারা রয়েছে—(১) বিশ্লেষণাত্মক (2) সংশ্লেষাত্মক মতবাদ। সমাজতত্ত্বের আলােচ্য বিষয়বস্তু নির্ধারণের জন্য এই দুটি মতবাদ সম্পর্কে আলােচনা করা প্রয়ােজন।


১. বিশ্লেষণাত্মক মতবাদ (Formalistic or Specialistic School) : বিশ্লেষণাত্মক বা আনুষ্ঠানিক মতবাদের প্রবক্তাগণ উল্লেখ করেন যে সমাজস্থ মানুষের পারস্পরিক সম্পর্ক বিশ্লেষণ করা এবং সমাজ জীবনের বিভিন্ন সম্পর্কের ব্যাখ্যা করা হল সমাজতত্ত্বের প্রধান আলােচ্য বিষয়। এই মতবাদের সমর্থকদের মধ্যে সিমেল, উইজে, ফিয়ারকান্ড, ওয়েবার প্রমুখের নাম উল্লেখযােগ্য।


প্রথমত, জার্মান সমাজতাত্ত্বিক সিমেল (১৮৫৮-১৯১৮) মনে করেন যে সমাজতত্ত্ব মানুষের বহুবিধ সামাজিক সম্পর্ককে বিশ্লেষণ করে। সামাজিক জীবনে একাধিক সামাজিক সম্পর্ক লক্ষ করা যায়। প্রভুত্বের সম্পর্ক, অধীনতার সম্পর্ক, শ্রমবিভাগ প্রভৃতি সামাজিক সম্পর্ক সমাজ জীবনে প্রতিফলিত হয়। সমাজতত্ত্বের কাজ হল এই সমস্ত সামাজিক সম্পর্ককে বিশ্লেষণ ও শ্রেণীভেদ করা।


দ্বিতীয়ত, সমাজতাত্ত্বিক ফিয়ারকান্ড মনে করেন যে, সমাজবদ্ধসম্পর্ক মানবিক বৃত্তির উপর নির্ভরশীল। মান্য করা, অমান্য করা ইত্যাদি মানসিক বৃত্তিগুলিকে বিশ্লেষণ করাই সমাজতত্ত্বের প্রধান লক্ষ্য।


তৃতীয়ত, জামান দার্শনিক উইজে মানুষের পারস্পরিক সম্পর্ককে দুটি প্রধান ধারায় বিশ্লেষণ করেন; সংযােগকারী এবং বিয়ােগকারী। তাঁর মতে সমাজতত্ত্ব এই ধারাগুলিকে নিয়ে আলােচনা করে।


চতুর্থত, জার্মান দার্শনিক ম্যাক্স ওয়েবার সমাজতত্ত্বের এক পৃথক আলােচনা ক্ষেত্র নির্ণয় করেন। তাঁর মতে সামাজিক ব্যবহারের ব্যাখ্যা, বিশ্লেষণ ও অনুধাবন করা হল সমাজতত্ত্বের প্রধান উদ্দেশ্য।  সমাজতাত্ত্বিক টনিজ সম্প্রদায় এবং সমিতি এই দুই সম্পর্কের ভিত্তিতে সমাজকে শ্রেণীবিভক্ত করেন। তাঁর মতে সম্প্রদায় এবং সমিতির ভিত্তিতেই সামাজিক সম্পর্ককে ব্যাখ্যা করা সম্ভব। যখন কোনাে জনসমষ্টি নির্দিষ্ট প্রয়ােজনের উদ্দেশ্যে মিলিত না হয়ে সার্বিক প্রয়ােজন মেটানাের উদ্দেশ্যে একত্রে বসবাস করে, তাকে সম্প্রদায় বা Gemeinschaft বলা হয়। প্রাক-শিল্প যুগের জাতি গােষ্ঠী, পরিবার, গ্রাম সমাজ এর অন্যতম উদাহরণ। অন্যদিকে নির্দিষ্ট প্রয়ােজন পূরণ করার উদ্দেশ্যে মিলিত হলে, সেই জনসমষ্টিকে যৌথভাবে সমিতি বা Gesellschaft বলা হয়।


সুতরাং বিশ্লেষণাত্মক মতবাদ সামাজিক সম্পর্কের বিশেষ বিশেষ দিক নিয়ে আলােচনা করে। সম্পর্কের, ক্রিয়াকলাপের ও ঘটনাবলির আকার ও বাহ্যিক রূপের উপর বেশি গুরুত্ব আরােপ করে। সহযােগিতা, অসহযােগিতা, প্রতিযােগিতা, শত্রুতা ইত্যাদি সম্পর্কের বাহ্যিক দিককে বিশ্লেষণ করে। এদিক থেকে বিচার করলে সমাজতত্ত্বের আলােচ্য বিষয় অত্যন্ত সংকীর্ণ। সামাজিক সম্পর্কের বাহ্যিক দিক নিয়ে আলােচনা করলে সমাজতত্ত্ব বিমূর্ত হয়ে ওঠে। মানব সমাজ হল একটি অখণ্ড ও সামগ্রিক বিষয়। অভিন্ন সমাজের বিভিন্ন বিষয় পরস্পরের সঙ্গে সম্পর্ক যুক্ত। সুতরাং সমগ্র সমাজকে উপেক্ষা করে বিচ্ছিন্নভাবে শুধুমাত্র সম্পর্ক নিয়ে আলােচনা করলে সমাজতত্ত্বের আলােচনা অর্থহীন হয়ে উঠে। তাই বিশ্লেষণাত্মক মতবাদের প্রবক্তাগণ সমাজতত্ত্বকে একটি স্বতন্ত্র শাস্ত্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি। এর ফলে সমাজতত্ত্বের আলােচনাক্ষেত্র নির্ণয়ের জন্য সংশ্লেষাত্মক মতবাদ সৃষ্টি হয়েছে।


২. সংশ্লেষাত্মক মতবাদ (Synthetic School) : সংশ্লেষাত্মক মতবাদ অনুযায়ী সমাজের বিভিন্ন অংশ এবং কাজকর্ম পরস্পরের উপর নির্ভরশীল। সমাজ একটি জৈবিক সত্তা না হলেও পুরােপুরি যান্ত্রিক নয়। একাধিক মনস্তাত্ত্বিক এবং সামাজিক বন্ধনের দ্বারা সমাজ আবদ্ধ। সমাজবিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখা সমাজ জীবনের ভিন্ন ভিন্ন দিক নিয়ে আলােচনা

Tuesday, May 25, 2021

Marx class struggle


 Class struggle :

 সমাজ বিকাশের ইতিহাস পর্যালোচনা করে সমাজ গবেষক গন বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি ও দৃষ্টিকোন থেকে সামাজিক জনগোষ্ঠীকে বিভক্ত করেন | সামাজিক দিক থেকে শ্রেণী তত্বের ধারনা অন্যতম . mara  এর  বহু পূর্ব আডাম smita , devor rechardo প্রমুখ বুরজোয়া তাত্বিকগণ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির কথা উল্লেখ করেছেন . মার্কস সর্ব প্রথম  ঐতিহাসিক বস্তু বারের দৃষ্টিভঙ্গিতে , শ্রেণির উৎপত্তি ,শ্রেণী সংগ্রাম ও শ্রেণী হীন সমাজ প্রতিষ্ঠার কথা ঘোষণা করেন . 


লেনিনের কথা অনুযায়ী শ্রেণি বলতে বোঝায় এমন এক  জনগোষ্ঠী যা সামাজিক  উৎপাদনের ঐতিহাসিক ভাবে  নির্দিষ্ট অবস্থায় একটি  বিশেষ  জায়গা অধিকার করে, উৎপাদনের উপায়ের সঙগে  একটি পৃথক সম্পর্ক  গড়ে তোলে •

Monday, May 17, 2021

Communalism


 Communalism :


সাম্প্রদায়িকতা একটি রাজনৈতিক দর্শন যা একটি নির্দিষ্ট ধর্মের অনুসারীদের তাদের নিজস্ব ধর্মীয় সম্প্রদায়ের সাথে রাজনৈতিক আনুগত্য থাকার পক্ষে পরামর্শ দেয়। প্রকৃতপক্ষে, কোনও ব্যক্তির ধর্মীয় সম্প্রদায়ের সামাজিক, সাংস্কৃতিক এবং সেবার দিকগুলির সাথে কেবল সম্পৃক্ততা সাম্প্রদায়িকতার পরিমান নয়। সাম্প্রদায়িকতা একটি নির্দিষ্ট ধর্মের অনুসারীদের অন্যান্য ধর্মীয় সম্প্রদায়ের অনুসারীদের বিরুদ্ধে ঘৃণা করার জন্য প্রচার করে। এটি ধরে নেওয়া হয় যে একটি নির্দিষ্ট ধর্মের অনুসারীদের সাধারণ স্বার্থ হবে যা অন্য ধর্মগুলির থেকে পৃথক। সংক্ষেপে, সাম্প্রদায়িকতা ধর্মনিরপেক্ষতা এমনকি মানবতাবাদের বিরোধী।

তবে পশ্চিমা বিশ্বে সাম্প্রদায়িকতাকে আলাদাভাবে সংজ্ঞায়িত করা হয়। সমাজতান্ত্রিক মারে বুকচিনের মতে সাম্প্রদায়িকতা হ'ল "একটি তত্ত্ব বা সরকার পদ্ধতি যা স্বাধীন সম্প্রদায়গুলি একটি ফেডারেশনে অংশ নেয়।" সোজা কথায়, পশ্চিমা বিশ্বে সাম্প্রদায়িকতা বাজার এবং অর্থ বিলোপের প্রস্তাব দেয় এবং জমি ও উদ্যোগকে একটি সম্প্রদায়ের হেফাজতে রাখে। তবে, ভারতীয় উপমহাদেশের প্রেক্ষাপটে সাম্প্রদায়িকতা শব্দটি বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনার সাথে জড়িত।


সাম্প্রদায়িকতা এমন একটি মতাদর্শ যা কেবল দক্ষিণ এশিয়ার ক্ষেত্রেই অনন্য হিসাবে বিবেচিত হয় তবে আফ্রিকা, আমেরিকা, ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া এবং এশিয়ার অন্যান্য অংশেও এটি পাওয়া যায়। প্রকৃতপক্ষে, বিশ্বাস করা হয় যে সাম্প্রদায়িকতার বিকাশের আফ্রিকার জাতিগত এবং সাংস্কৃতিক বৈচিত্রের মূল রয়েছে in সাম্প্রদায়িকতা প্রায়শই একটি আধুনিক ঘটনা হিসাবে বিবেচিত হয় যা আধুনিকীকরণ এবং দেশ গঠনের প্রক্রিয়ার ফলাফল। তবে ধারণাটি দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির মতো বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, মায়ানমার, শ্রীলঙ্কা, নেপাল প্রভৃতি আর্থ-সামাজিক এবং রাজনৈতিক ইস্যুতে পরিণত হয়েছে

সাম্প্রদায়িকতার অন্যতম প্রধান প্রকাশ সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা। ভারতে একাধিক ধর্ম ও ধর্ম পালন করা হয় যা প্রায়শই বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের মধ্যে সহিংসতা ও বিদ্বেষের দিকে পরিচালিত করে। প্রায়শই, এই ব্যক্তিরা যারা ধর্মীয় সহিংসতা ছড়ায় তারা ধর্মকে নৈতিক ব্যবস্থা হিসাবে বিবেচনা করে না।

Tuesday, May 11, 2021

Qualitative data


 Qualitative data :


গুণগত ডেটা এমন ডেটা হিসাবে সংজ্ঞায়িত করা হয় যা প্রায় এবং বৈশিষ্ট্যযুক্ত করে।


গুণগত তথ্য পর্যবেক্ষণ এবং রেকর্ড করা যেতে পারে। এই ডেটা টাইপ প্রকৃতির অ-সংখ্যাসূচক। এই ধরণের ডেটা পর্যবেক্ষণের পদ্ধতিগুলি, এক-এক-এক সাক্ষাত্কার, ফোকাস গ্রুপ পরিচালনা এবং অনুরূপ পদ্ধতির মাধ্যমে সংগ্রহ করা হয়। পরিসংখ্যানগুলিতে গুণগত ডেটা শ্রেণীবদ্ধ তথ্য হিসাবেও পরিচিত - ডেটা যা কোনও জিনিস বা ঘটনার বৈশিষ্ট্য এবং বৈশিষ্ট্যের ভিত্তিতে শ্রেণিবদ্ধভাবে সাজানো যেতে পারে।


Importance of qualitative data :


গুণাবলী বা বৈশিষ্ট্যের নির্দিষ্ট ফ্রিকোয়েন্সি নির্ধারণে গুণগত তথ্য গুরুত্বপূর্ণ। এটি পরিসংখ্যানবিদ বা গবেষকদের এমন পরামিতি গঠনের অনুমতি দেয় যার মাধ্যমে বৃহত্তর ডেটা সেটগুলি পর্যবেক্ষণ করা যায়। গুণগত ডেটা এমন মাধ্যম সরবরাহ করে যার মাধ্যমে পর্যবেক্ষকরা তাদের চারপাশের বিশ্বকে মাপ দিতে পারেন।


বাজারের গবেষকের জন্য, গুণগত ডেটা সংগ্রহ করা তাদের গ্রাহকরা, কোন সমস্যা বা সমস্যাগুলির মুখোমুখি হচ্ছে এবং কোথায় তাদের মনোযোগ নিবদ্ধ করার দরকার আছে এমন প্রশ্নের উত্তর দিতে সহায়তা করে, সুতরাং সমস্যা বা সমস্যাগুলি সমাধান করা হয়।


গুণগত তথ্য হ'ল মানুষের অনুভূতি বা উপলব্ধি সম্পর্কে, তারা কী অনুভব করে। পরিমাণগত ডেটাতে, এই উপলব্ধি এবং সংবেদনগুলি ডকুমেন্টেড হয়। এটি বাজার গবেষকদের তাদের ভোক্তাদের যে ভাষা বলে এবং বুঝতে এবং কার্যকর ও কার্যকরভাবে সমস্যাটি মোকাবেলা করতে সহায়তা করে।

Saturday, May 8, 2021

Defination charecteristics and of FAMILY


 Defination of family :

ম্যাকআইভার পরিবারকে "যৌন সম্পর্কের দ্বারা সংজ্ঞায়িত একটি দল পর্যাপ্ত সুনির্দিষ্ট এবং শিশুদের সংগ্রহ ও লালন-পালনের জন্য সরবরাহ করার মতো স্থায়ী হিসাবে সংজ্ঞায়িত করেছে।"


এলিয়ট এবং মেরিল বলেছেন "পরিবার হ'ল জৈবিক সামাজিক একক যা স্বামী, স্ত্রী এবং শিশুদের নিয়ে গঠিত।"


বার্গেস এবং লকের পরিবারকে পরিবার হিসাবে সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে "বিবাহ, রক্ত ​​বা গ্রহণের বন্ধনে একত্রিত ব্যক্তিদের একটি গ্রুপ, একক পরিবারকে সমন্বিত করে, স্বামী এবং স্ত্রী, মা এবং পিতা, পুত্র এবং স্ব স্ব সামাজিক ভূমিকার সাথে একে অপরের সাথে আলাপচারিতা এবং আন্তঃসংযোগ করে and কন্যা, ভাই এবং বোন একটি সাধারণ সংস্কৃতি তৈরি করে।





 

ওগবার্ন এবং নিমকফ বলেছেন "পরিবার সন্তানদের সাথে বা একা একা পুরুষ বা মহিলার সাথে বা স্বামী-স্ত্রীর কমবেশি টেকসই সংযোগ” "


আমেরিকা শুমারির ব্যুরো উল্লেখ করেছে, "পরিবার হ'ল রক্ত, বিবাহ বা দত্তক গ্রহণের সাথে সম্পর্কিত এবং একসাথে বসবাস করে এমন দু'জন ব্যক্তির একটি গ্রুপ, এই জাতীয় সমস্ত ব্যক্তিকে একটি পরিবারের সদস্য হিসাবে বিবেচনা করা হয়।"



Charecteristics of FAMILY :


পরিবারের বৈশিষ্ট্য


এই সংজ্ঞাগুলির মধ্যে একটি পরিবারের নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যগুলি বর্ণিত হতে পারে:


(i) বৈবাহিক সম্পর্ক:





 

একটি পরিবার অস্তিত্ব লাভ করে যখন একটি পুরুষ এবং একজন মহিলা তাদের যৌন আকাঙ্ক্ষা মেটাতে বিবাহ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের মধ্যে সঙ্গমের সম্পর্ক স্থাপন করে। বৈবাহিক সম্পর্ক ভেঙে গেলে পরিবারটি ভেঙে পড়ে।


(ii) বিবাহের ফর্ম:


পুরুষ ও মহিলার মধ্যে সঙ্গম সম্পর্ক স্থাপনের জন্য বিবাহের বিভিন্ন রূপ যেমন এককামী, বহু বিবাহ, বহুভুজ বা যৌথ বিবাহ সংঘটিত হতে পারে। অংশীদারদের পিতামাতা বা প্রবীণরা বা তাদের পছন্দ অনুসারে বাছাই করতে পারে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ইচ্ছার জন্য।


(iii) নামকরণের একটি ব্যবস্থা:





 

প্রতিটি পরিবার একটি নামে পরিচিত এবং বংশদ্ভুত গণনার নিজস্ব ব্যবস্থা আছে। বংশবৃদ্ধি পুরুষ লাইনের মাধ্যমে বা মহিলা লাইনের মাধ্যমে গণনা করা যেতে পারে। যখন বংশোদ্ভূত বাবার মাধ্যমে গণনা করা হয়, তখন তাকে প্যাট্রিলিনি বলা হয়। যখন এটি মায়ের মাধ্যমে গণনা করা হয় তখন তাকে ম্যাট্রিলিনি বলা হয়। উভয় রেখার মধ্য দিয়ে বংশদ্ভূত যখন চিহ্নিত করা হয় তখন তাকে বিলিনি বলা হয়।


(iv) একটি অর্থনৈতিক বিধান:


প্রত্যেক পরিবারের সদস্যদের অর্থনৈতিক চাহিদা মেটাতে একটি অর্থনৈতিক বিধান দরকার। সুতরাং পরিবারের প্রধান এবং পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা পরিবার বজায় রাখার জন্য অর্থ উপার্জনের জন্য নির্দিষ্ট পেশা বা ব্যবসা পরিচালনা করে।


(v) একটি সাধারণ বাসস্থান:




একটি পরিবারের পরিবারের সদস্যদের জীবনযাপনের জন্য একটি বাড়ি প্রয়োজন। কোনও আবাসস্থল ছাড়া শিশু বহন এবং শিশু লালনের কাজ পর্যাপ্তভাবে সম্পাদন করা যায় না। পরিবারটি এইভাবে একটি জৈবিক ইউনিট স্বামী এবং স্ত্রীর মধ্যে ইন্সটিটিশনযুক্ত যৌন সম্পর্ককে বোঝায়। এটি দুটি বিবাহিত ব্যক্তির শারীরবৃত্তীয় ইউনিয়ন থেকে ফলাফল যারা ইউনিটের অন্যান্য সদস্যদের তৈরি করে। এটি একটি সমিতি এবং প্রতিষ্ঠান উভয়ই। এটি প্রতিটি যুগে এবং প্রতিটি সমাজে পাওয়া সর্বজনীন প্রতিষ্ঠান। এটি সেই প্রাথমিক ঘর যা থেকে সম্প্রদায়টি বিকাশ করে |

Friday, May 7, 2021

Charecteristics of social stratification


 সামাজিক স্তরবিন্যাসের বৈশিষ্ট্য:


বিশিষ্ট আলেমদের দেওয়া বিভিন্ন সংজ্ঞা বিশ্লেষণের ভিত্তিতে, সামাজিক স্তরবিন্যাসের নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্য থাকতে পারে।


বিজ্ঞাপনগুলি:


(ক) সামাজিক স্তরবিন্যাস সর্বজনীন:


এই পৃথিবীতে এমন কোন সমাজ নেই যা স্তরবদ্ধতা থেকে মুক্ত। আধুনিক স্তরসমষ্টি আদিম সমাজের স্তরবিন্যাস থেকে পৃথক। এটি একটি বিশ্বব্যাপী ঘটনা। সোরোকিনের মতে “স্থায়ীভাবে সংগঠিত সমস্ত গোষ্ঠী স্তরবদ্ধ।”


(খ) স্তরবিন্যাস সামাজিক:


এটি সত্য যে জৈবিক গুণাবলী কারও শ্রেষ্ঠত্ব এবং হীনমন্যতা নির্ধারণ করে না। বয়স, লিঙ্গ, বুদ্ধিমত্তার পাশাপাশি শক্তির মতো বিষয়গুলি প্রায়শই যে ভিত্তিতে মূর্তিগুলি আলাদা করা হয় তার জন্য অবদান রাখে। তবে একের শিক্ষা, সম্পত্তি, শক্তি, অভিজ্ঞতা, চরিত্র, ব্যক্তিত্ব ইত্যাদি জৈবিক গুণাবলীর চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে হয়। সুতরাং, স্তরবিন্যাস প্রকৃতি দ্বারা সামাজিক।


(গ) এটি প্রাচীন:


স্ট্রেটিফিকেশন সিস্টেমটি খুব পুরানো। এটি এমনকি ছোট বিস্ময়কর বন্ধনেও উপস্থিত ছিল। প্রায় সমস্ত প্রাচীন সভ্যতায় ধনী-দরিদ্র, নম্র ও শক্তিমানের মধ্যে পার্থক্য বিদ্যমান ছিল। প্লেটো এবং কৌটিল্যের সময়কালে এমনকি রাজনৈতিক, সামাজিক এবং অর্থনৈতিক বৈষম্যকেও গুরুত্ব দেওয়া হয়েছিল।




(d) এটি বিভিন্ন ধরণের:


স্তরবিন্যাসের রূপগুলি সকল সমাজে সমান নয়। আধুনিক বিশ্বমানের ক্ষেত্রে বর্ণ ও সম্পদ হ'ল স্তূপীকরণের সাধারণ রূপ। ভারতে বর্ণের আকারে একটি বিশেষ ধরণের স্তরবিন্যাস পাওয়া যায়। প্রাচীন আর্যগুলি চারটি বর্ণে বিভক্ত ছিল: ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয়, বৈশ্য এবং সুদ্রা। প্রাচীন গ্রীকরা ফ্রিম্যান এবং ক্রীতদাসে বিভক্ত ছিল এবং প্রাচীন রোমানরা পার্টিশিয়ান এবং ক্রেতাদের মধ্যে বিভক্ত ছিল। সুতরাং প্রতিটি সমাজ, অতীত বা বর্তমান, বড় বা ছোট প্রতিটি সামাজিক স্তরবদ্ধকরণের বিভিন্ন ধরণের দ্বারা চিহ্নিত হয়।


(ঙ) সামাজিক স্তরবিন্যাস ফলস্বরূপ:


সামাজিক স্তরবিন্যাসের দুটি গুরুত্বপূর্ণ পরিণতি রয়েছে একটি হ'ল "জীবন সম্ভাবনা" এবং অন্যটি হ'ল "লাইফ স্টাইল"। একটি শ্রেণিবদ্ধ ব্যবস্থা কেবল ব্যক্তির "জীবন সম্ভাবনা "গুলিকেই প্রভাবিত করে না তবে তাদের" জীবনধারা "ও প্রভাবিত করে।


একটি শ্রেণীর সদস্যদের একই রকম সামাজিক সম্ভাবনা থাকে তবে সামাজিক সম্ভাবনা প্রতিটি সমাজে পরিবর্তিত হয়। এর মধ্যে রয়েছে বেঁচে থাকার সম্ভাবনা এবং ভাল শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য, শিক্ষার সুযোগ, ন্যায়বিচার পাওয়ার সম্ভাবনা, বৈবাহিক দ্বন্দ্ব, বিচ্ছেদ এবং বিবাহ বিচ্ছেদ ইত্যাদি

Types of social stratification


 সামাজিক স্তরবিন্যাসের প্রকার:


সামাজিক স্তরবিন্যাস বিভিন্ন নীতির উপর ভিত্তি করে। সুতরাং আমরা বিভিন্ন ধরণের স্তরবদ্ধকরণ খুঁজে পাই।


স্ট্র্যাটিফিকেশন প্রধান ধরণের হয়


(i) বর্ণ


(ii) ক্লাস


(iii) সম্পত্তি


iv) দাসত্ব


(i) বর্ণ একটি বংশগত এন্ডোগামাস সামাজিক গ্রুপ যার মধ্যে কোনও ব্যক্তির পদ এবং তার সাথে সম্পর্কিত অধিকার এবং বাধ্যবাধকতা একটি নির্দিষ্ট দলে তার জন্মের ভিত্তিতে অঙ্কিত হয়। যেমন- ব্রাহ্মণ, ক্ষত্র্য, বৈশ্য এবং সুদ্র বর্ণ ra


(ii) আধুনিক সমাজে শ্রেণির ভিত্তিতে শ্রেণিবদ্ধকরণ প্রাধান্য পায়। এতে, কোনও ব্যক্তির অবস্থান অর্জন এবং জন্মগত বৈশিষ্ট্য এবং সম্পদ অর্জন করতে সক্ষম হওয়ার উপর তার ব্যবহারের দক্ষতার উপর নির্ভর করে।



 

(iii) মধ্যযুগীয় ইউরোপের এস্টেট সিস্টেমটি আরেকটি স্তরবদ্ধকরণ সরবরাহ করে যা জন্মের পাশাপাশি সম্পদ এবং সম্পদগুলিকে অনেক বেশি জোর দেয়। প্রতিটি এস্টেটের একটি রাষ্ট্র ছিল।


(iv) দাসত্বের অর্থনৈতিক ভিত্তি ছিল। দাসত্বের ক্ষেত্রে, প্রত্যেক দাসের তার মালিক ছিল যার কাছে তাকে বশীভূত করা হয়েছিল। দাসের উপর মাস্টারের ক্ষমতা সীমাহীন ছিল।

Social stratification defination


 Definition :


সামাজিক স্তরবিন্যাস অর্থৎ. শ্রেণিবদ্ধভাবে সুপারপোজড শ্রেণিতে প্রদত্ত জনগোষ্ঠীর পার্থক্য। এটি উচ্চ এবং নিম্ন সামাজিক স্তরগুলির অস্তিত্বের মধ্যে প্রকাশিত হয়। এর ভিত্তি এবং মূল উপাদানটি সমাজের সদস্যদের মধ্যে অধিকার এবং অধিকার, কর্তব্য এবং দায়িত্ব, সামাজিক মূল্যবোধ এবং বেসরকারীতা, সামাজিক শক্তি এবং প্রভাবগুলির অসম বন্টন নিয়ে গঠিত।


1. ওগবার্ন এবং নিমকফ:


"যে প্রক্রিয়া দ্বারা ব্যক্তি বা গোষ্ঠীগুলি স্থিতির কমবেশি স্থায়ী স্তরবিন্যাসে স্থান পেয়েছে তাকে স্তরবিন্যাস হিসাবে পরিচিত করা হয়"




 

2. লন্ডবার্গ:


"একটি স্তরিত সমাজ অসমতার দ্বারা চিহ্নিত একটি, মানুষের মধ্যে পার্থক্য দ্বারা যা তাদের দ্বারা" নিম্ন "এবং" উচ্চতর "হিসাবে মূল্যায়ন করা হয়।


৩. গিসবার্ট:


"সামাজিক স্তরবিন্যাস হ'ল সমাজকে শ্রেষ্ঠত্ব ও অধীনস্থতার সম্পর্কের মাধ্যমে একে অপরের সাথে যুক্ত বিভাগের স্থায়ী গোষ্ঠীতে বিভক্ত করা"।





 

৪. উইলিয়ামস:


সামাজিক স্তরবিন্যাস বলতে মূল্যায়নের কিছু সাধারণভাবে গৃহীত ভিত্তি অনুসারে, "শ্রেষ্ঠত্ব-নিকৃষ্টতা-সাম্যতার স্কেলগুলিতে ব্যক্তির স্থান নির্ধারণকে বোঝায়।


5. রেমন্ড ডব্লু। মারে:


সামাজিক স্তরবিন্যাস হল সমাজের অনুভূমিক বিভাগকে "উচ্চতর" এবং "নিম্ন" সামাজিক ইউনিটে রূপান্তর করা।




6. মেলভিন এম টিউমিন:


"সামাজিক স্তরবিন্যাস বলতে বোঝায় যে" ক্ষমতা, সম্পত্তি, সামাজিক মূল্যায়ন এবং মানসিক তৃপ্তির ক্ষেত্রে অসম এমন পজিশনের শ্রেণিবিন্যাসে কোনও সামাজিক গোষ্ঠী বা সমাজের ব্যবস্থা করা "।

Thursday, May 6, 2021

scope and subject matter of demography

 

Scope of demography :


ডেমোগ্রাফির সুযোগ:

ডেমোগ্রাফির সুযোগ খুব বিস্তৃত। এর মধ্যে ডেমোগ্রাফির বিষয় অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, এটি কোনও মাইক্রো বা ম্যাক্রো অধ্যয়ন? তা বিজ্ঞান নাকি শিল্প? এগুলি হ'ল ডেমোগ্রাফির ক্ষেত্র সম্পর্কে উদ্বেগজনক প্রশ্ন যা সম্পর্কে ডেমোগ্রাফি নিয়ে লেখকদের মধ্যে সর্বসম্মতি নেই |


Subject matter of demography :

ডেমোগ্রাফি অধ্যয়ন নিম্নলিখিত অন্তর্ভুক্ত:


ক। জনসংখ্যার আকার এবং আকার:


সাধারণত জনসংখ্যার আকার বলতে একটি নির্দিষ্ট সময়ে সাধারণত একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে বসবাসকারী ব্যক্তির মোট সংখ্যা বোঝায়। যে কোনও অঞ্চল, রাজ্য বা জাতির জনসংখ্যার আকার এবং আকার পরিবর্তনযোগ্য। কারণ, প্রতিটি দেশের নিজস্ব নিজস্ব রীতিনীতি, বিশেষত্ব, সামাজিক-অর্থনৈতিক পরিস্থিতি, সাংস্কৃতিক পরিবেশ, নৈতিক মূল্যবোধ এবং পরিবার পরিকল্পনার কৃত্রিম উপায়ে গ্রহণের জন্য এবং স্বাস্থ্য সুবিধাগুলির প্রাপ্যতা ইত্যাদির বিভিন্ন মান রয়েছে etc.


এই সমস্ত কারণগুলি জনসংখ্যার আকার এবং আকারকে প্রভাবিত করে এবং যদি এই বিষয়গুলি জনসংখ্যার অধীনে যে কোনও অঞ্চলের রেফারেন্স সহ অধ্যয়ন করা হয়, তবে আমরা জনগণের আকার এবং আকার নির্ধারণে তারা যে ভূমিকা পালন করে তা স্পষ্টভাবে বুঝতে পারি।


খ। জন্মের হার এবং মৃত্যুর হারের সাথে সম্পর্কিত দিকগুলি:


জন্মের হার এবং মৃত্যুর হার জনসংখ্যার আকার এবং আকারকে প্রভাবিত করে এমন এক সিদ্ধান্তক কারণ এবং তাই জনসংখ্যার অধ্যয়নের ক্ষেত্রে তাদের গুরুত্ব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এগুলি ছাড়াও, বিবাহের হার, সামাজিক মর্যাদা এবং বিবাহ সম্পর্কিত বিশ্বাস, বিবাহের বয়স, বিবাহ সম্পর্কিত গোঁড়া রীতিনীতি, বাল্য বিবাহ এবং মা ও সন্তানের স্বাস্থ্যের উপর এর প্রভাব, শিশু শিশু হত্যার হার, মাতৃসংশ্লিষ্ট মৃত্যুর মতো কারণগুলি জন্ম, প্রতিরোধ শক্তি, চিকিত্সা পরিষেবার স্তর, পুষ্টিকর খাবারের প্রাপ্যতা, মানুষের ক্রয় শক্তি ইত্যাদি জন্ম ও মৃত্যুর হারকেও প্রভাবিত করে।


জনসংখ্যার গঠন এবং ঘনত্ব:


জনসংখ্যার বিষয়গুলিতে জনসংখ্যার সংমিশ্রণ এবং ঘনত্বের অধ্যয়ন গুরুত্বপূর্ণ। জনসংখ্যার কারণগুলির মধ্যে লিঙ্গ অনুপাত, জাতি ভিত্তিক এবং বয়সের ভিত্তিতে জনসংখ্যার আকার, গ্রামীণ ও নগর জনসংখ্যার অনুপাত, ধর্ম এবং ভাষা অনুসারে জনসংখ্যার বন্টন, জনসংখ্যার পেশাগত বন্টন, কৃষি ও শিল্প কাঠামো এবং প্রতি বর্গ কিমি. জনসংখ্যার ঘনত্ব খুব গুরুত্বপূর্ণ।


এই নির্দিষ্ট অঞ্চলে উন্নয়নের সম্ভাবনা, এ অঞ্চলের সামাজিক-অর্থনৈতিক সমস্যা, নগর জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে সৃষ্ট সমস্যা এবং জনসংখ্যার ঘনত্ব সম্পর্কিত জনসংখ্যার অধ্যয়নের অংশ হিসাবে এই জাতীয় তথ্যের সাহায্যে।


আর্থ-সামাজিক সমস্যা:


জনসংখ্যা বৃদ্ধির সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে, শহুরে অঞ্চলে শিল্পায়নের কারণে উচ্চ ঘনত্বের প্রভাবগুলি আরও বেশি গুরুত্ব দেয় কারণ এগুলি জনগণের আর্থ-সামাজিক জীবনকে প্রভাবিত করে। বস্তি অঞ্চল, দূষিত বায়ু এবং জল, অপরাধ, মদের আসক্তি, কিশোর অপরাধ এবং পতিতাবৃত্তির মতো সমস্যাগুলিও জনসংখ্যার অধ্যয়নের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।


Demography definition

 

Demography :

ডেমোগ্রাফি হ'ল জনসংখ্যার বৈজ্ঞানিক গবেষণা। এটি জনগণের সংখ্যার সাথে সম্পর্কিত এবং জনসংখ্যার গতিবেগ বোঝার সাথে সম্পর্কিত - জনসংখ্যা কীভাবে উর্বরতা, মৃত্যুহার এবং স্থানান্তরের মধ্যকার পারস্পরিক প্রতিক্রিয়ার জবাবে পরিবর্তিত হয়। ভবিষ্যতে জনসংখ্যার আকার এবং কাঠামো সম্পর্কে পূর্বাভাস তৈরি করার জন্য এই বোঝাপড়া একটি পূর্ব-প্রয়োজনীয়তা যা অনেক সরকারী ও ব্যবসায়িক পরিকল্পনার জন্য প্রয়োজনীয়। জনসংখ্যা কীভাবে পরিবর্তিত হয় এবং জনসংখ্যার পরিমাপ এবং জনসংখ্যার পরিবর্তনের উপাদানগুলি সম্পর্কে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সাথে ডেমোগ্রাফি মূলত সংশ্লিষ্ট জনসংখ্যা অধ্যয়নের বিস্তৃত ক্ষেত্র এই পরিবর্তনগুলি কেন ঘটে এবং কী পরিণতি সহ প্রশ্নগুলি জড়িয়ে ধরে এবং জনসংখ্যা এবং জনসংখ্যার উপ-গোষ্ঠীর বৈশিষ্ট্য এবং আচরণের ক্ষেত্রে বিস্তৃত বহু-বিভাগীয় তদন্তকে অন্তর্ভুক্ত করে। জনসংখ্যাতাত্ত্বিক এবং জনসংখ্যা বিজ্ঞানীদের বেশিরভাগ কাজ জনসংখ্যা পরিবর্তন এবং নীতিমালার আন্তঃপরতার সাথে সম্পর্কিত এবং ক্ষেত্রটি খাঁটি একাডেমিক হওয়ার থেকে অনেক দূরে।

Jean Baudrillard idea of simulacrum

  BAUDRILLARD অনুসারে, আধুনিক আধুনিক সংস্কৃতিতে যা ঘটেছিল তা হ'ল আমাদের সমাজ মডেল এবং মানচিত্রের উপর এতটাই নির্ভরশীল হয়ে উঠেছে যে আমরা ...